করোনা গ্রাসে দুর্গাপুর মহকুমা শাসক দফতর ; টানা ৪ দিন আইসোলেশনে দফতরের কর্মীরা; বিজ্ঞপ্তি জারি মহকুমা মহকুমা শাসকের তরফে

দুর্গাপুর,বেঙ্গল মিরর, ২৭ শে জুন,২০২০, সৌরদীপ্ত সেনগুপ্ত : করোনা পরিস্থিতিতে পঞ্চম দফা লকডাউন বা আন- লকডাউন   এর প্রাথমিক পর্যায়ের বেশ একটু ঢিলেঢালাভাবে সবকিছু শুরু হয়েছিল। খোলা ছিল মহকুমা শাসক দফতর-ও। তবে এই ঢিলেঢালা মানসিকতাই মাথাব্যথার  কারণ হয়ে উঠলো দুর্গাপুর প্রশাসনের কাছে। এককথায় করোনা থাবাই ফের লক করে দিল দুর্গাপুর মহকুমা শাসকের দফতর। 

riju advt

দুর্গাপুরে আক্রান্ত হলেন খোদ মহকুমা প্রশাসনের এক পদস্থ আধিকারিক। ওই আধিকারিক  প্রশাসনের একজন ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট এবং ডেপুটি কালেক্টর।
 গতকাল তাঁর সংক্রমনের খবর আসার পরেই চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে গোটা দুর্গাপুরে মহকুমা প্রশাসনিক ভবনের অন্দরে এবং আশপাশের এলাকায়। 

সিটি সেন্টার এলাকায় দুর্গাপুর মুখ্য প্রশাসনিক ভবনের সঙ্গেই রয়েছে দুর্গাপুরের মহকুমা আদালত। 
আর এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে গোটা আদালত চত্বরেও এদিন বিস্তর চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। 
এমনকি হুড়োহুড়ি পড়ে যায় আদালতের আইনজীবী  এবং বিচার প্রার্থীদের মধ্যেও। তৎপরতার সঙ্গে সরিয়ে দেওয়া হয় মহকুমা শাসকের দফতরে বিভিন্ন জায়গা থেকে কাজে আসা মানুষ জনকেও।প্রশাসনিক ভবনে মহকুমা স্বাস্থ্য দফতরের তরফে কর্মীরাও এসে পৌঁছে যান।

 প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই মহকুমা শাসকের দফতরে ছুটি ঘোষণা করা হয় আপৎকালীন ব্যবস্থা হিসেবে। একটি বিজ্ঞপ্তিতে দুর্গাপুর মহকুমা শাসক অনির্বাণ কোলে জানান, সোমবার (২৯/০৬/২০) পর্যন্ত সমস্ত রকম প্রশাসনিক কাজ-কর্ম বন্ধ রাখা হল। মহকুমা শাসক সহ দফতরের ৫০ জন কর্মী-আধিকারিককেও টানা চার দিন ঘরবন্দি থাকার নির্দেশ দেওয়া হল । ওইদিন স্থানীয় দমকল বিভাগের কর্মীরা স্বাস্থ্য-কর্মীদের সঙ্গে একসঙ্গে গোটা দফতরটি জীবাণুমুক্ত করার কাজ করেন। 
আবার অন্যদিকে গোটা দুর্গাপুর মহকুমা প্রশাসন-ই করোনার গ্রাসে প্রায় অচল হয়ে পড়ায় আসানসোল থেকে ফোনে পরিস্থিতির তদারকি করেন জেলাশাসক পূর্ণেন্দু মাজি। 
এ বিষয়ে দুর্গাপুরের মহকুমা শাসক অনির্বাণ কোলে  জানান, “জেলা প্রশাসনের পদস্থ আধিকারিকরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে করোনা পরিস্থিতির মোকাবিলা করেছেন প্রথম থেকেই ফলে তারাও “করোনা ওয়ারিয়র” বা “করোনা যোদ্ধা”। তাই এই বিষয়ে তাদের পাশে আমাদের মানসিকভাবে থাকা উচিত ।
 আক্রান্ত আধিকারিক এখন কোয়ারেন্টাইনে। সংক্রমণ যাতে না ছড়ায় সেজন্য সকলকেই আইসোলেশনে থাকতে হবে । আজ থেকে দফতরের সমস্ত কাজ স্থগিত করা হল।
তিনি এটাও জানান যে ,”শুধু জরুরি পরিষেবার ক্ষেত্রে দরকার পড়লে অনলাইনে আবেদন করা যাবে।”