করোনা পরিস্থিতিতে ই এস আই নার্সিং কলেজকে তৈরী করা হচ্ছে কোয়ারন্টাইন কেন্দ্র

 বেঙ্গল মিরর, আসানসোল, ১৭ ই এপ্রিল ২০২০, সৌরদীপ্ত সেনগুপ্ত:
 গতকাল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নির্দেশ দেওয়ার পরই আসানসোলের ই এস আই হাসপাতালের নার্সিং কলেজকে কে করোনা কোয়ারন্টাইন সেন্টার তৈরী করার তৎপরতার সঙ্গে প্রয়োজনীয় প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গিয়েছে।

riju advt

 ই এস আই হাসপাতালের নার্সিং কলেজে পানীয় জলের সংযোগ এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় বিষয়ে গতকাল হাসপাতাল সুপারিনটেনডেন্ট -র অফিসে একটি  গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক সংগঠিত হয়।
এই বৈঠকে হাসপাতালের আধিকারিকদের সঙ্গে আসানসোল মিউনিসিপ্যাল করপোরেশনের আধিকারিকরা ছিলেন। আধিকারিকদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন হাসপাতাল সুপারিনটেনডেন্ট ড: অতনু ভদ্র,
আসানসোল কর্পোরেশনের  মাননীয় মেয়র পারিষদ পূর্ণ শশী রায়, এক্সিকিউটিভ ইঞ্জিনিয়ার আর কে শ্রীবাস্তব, এসিস্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার সুকুমার দে ।

বৈঠক শেষে মেয়র পারিষদ পূর্ণশশী রায় বলেন,” ই এস আই হাসপাতালের নার্সিং কলেজ অতি দ্রুততার সঙ্গে পানীয় জলের সংযোগ দেওয়া হবে। এছাড়াও হাসপাতালের চারিপাশের এলাকা পরিষ্কার এবং নিয়মিত সাফাই অভিযান পুরসভার পক্ষ থেকে নেওয়া হবে।”
 বস্তুতঃ উল্লেখযোগ্য জমুরিয়ার চুরুলিয়াগ্রামে অবস্থিত চুরুলিয়া যুব আবাস কে কোয়ারন্টাইন সেন্টার তৈরী করা নিয়ে গ্রামবাসীদের বিরোধের মুখে পড়ে প্রশাসন ও পুলিশ এবং পরে তা সরিয়ে নেওয়া হয়। এরপরই মুখ্যমন্ত্রী নির্দেশ দেন আসানসোলের ই এস আই হাসপাতালকে কোয়ারন্টাইন সেন্টার তৈরী করার জন্যে। এরপরই বুধবার জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ( সি এম ও এইচ) ড: দেবাশীষ হালদার ই এস এই হাসপাতাল এবং নার্সিং কলেজ পরিদর্শন করেন এবং হাসপাতাল সুপার ড: অতনু ভদ্র – র সঙ্গে বৈঠক সারেন। সূত্র মারফত খবর, গতকাল ডি এম এবং পুলিশ কমিশনার ও হাসপাতাল পরিদর্শনে যান।
   এ বিষয়ে হাসপাতাল সুপার ড: অতনু ভদ্র বলেন, ” হাসপাতালের তরফ থেকে যা যা করণীয় সেসব করা হচ্ছে। পরবর্তী লিখিত নির্দেশ অনুযায়ী কাজ হবে। প্রশাসনের সঙ্গে বৈঠক হয়েছে।”