করোনা আতঙ্কের মধ্যে শিল্পাঞ্চলে স্বস্তির হাওয়া; সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন দুই মহিলা

বেঙ্গল মিরর, আসানসোল, ২৬ শে এপ্রিল, ২০২০, সৌরদীপ্ত সেনগুপ্ত :
   সারা দেশের সঙ্গে রাজ্যের পশ্চিম বর্ধমান জেলার মানুষ করোনা আতঙ্কে তটস্থ।
 কিছুদিন আগেই করোনা নিয়ে সংক্রমণের আশঙ্কা বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা আটকাতে আসানসোলের নুরুদ্দিন রোড সংলগ্ন অঞ্চল “কন্টেন্মেন্ট জোন” হিসেবে চিহ্নিত করে রাখা হয়েছে। 

riju advt

অন্যদিকে কিছুটা হলেও ধীরে ধীরে স্বস্তি ফিরছে আসানসোলের অন্যান্য বেশ কিছু জায়গার বাসিন্দাদের মধ্যে। তার মধ্যে যেমন রয়েছে আসানসোলের রেলপাড় এলাকা এবং  হটন রোড এলাকা। রেলপাড় অঞ্চলের বাসিন্দা ৫৮ বছর বয়সী একজন মহিলা এবং হটন রোড অঞ্চলের বাসিন্দা ৫৬ বছর বয়সী এক মহিলা জ্বর, সর্দি কাশি, শ্বাসকষ্ট নিয়ে প্রথমে আসানসোল জেলা হাসপাতালে যান।

সেখানে তাদের স্বাস্থ্যপরীক্ষার পর রিপোর্ট পজিটিভ আসে এবং নিয়ম অনুসারে চলতি মাসের ১৫ তারিখে মলানদিঘির করোনার জন্যে সংরক্ষিত হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে তাঁরা এতদিন চিকিৎসাধীন ছিলেন। তাদের লালারস পরীক্ষা করার জন্য কলকাতাতেও পাঠানো হয়। সেই পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ আসে বলে প্রশাসন সুত্রে দাবি করা হয়। গতকাল শনিবার ওই দুই মহিলাকে ছেড়ে দেওয়া হয় বলে হাসপাতাল সূত্র মারফত  জানা গেছে। স্বভাবতই এই বিষয়টি যখন আসানসোলের বাসিন্দারা জানতে পারেন তখন কিছুটা হলে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেন ওই এলাকার মানুষজন।

  গত ১৬ই এপ্রিল মলানদিঘির ওই হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছিলেন আসা্নসোলেরই  অন্য এক বাসিন্দা। ওই ব্যাক্তির লালারসের পরীক্ষার পর প্রথম রিপোর্ট পজিটিভ আসায়  আতঙ্ক ছড়ায় শিল্পাঞ্চলে। কিন্তু ওই ব্যক্তির পর পর দুবার আরো পরীক্ষা করা হলে পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ আসে এবং ওই ব্যাক্তিকে সম্পূর্ণ সুস্থ ঘোষণা করা হয়।