আসানসোল-দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেটের তরফে ১২টি পুজো কমিটিকে বিশেষ সম্মান, দুর্ঘটনায় সহায়তার জন্য হেল্পলাইন 8116604402

বেঙ্গল মিরর, আসানসোল, সৌরদীপ্ত সেনগুপ্ত ও রাজা বন্দ্যোপাধ্যায় : আসানসোল দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেটের তরফে সোমবার বিকেলে এডিডিএ-র কনফারেন্স হলে “শারদ সম্মান ২০২২” -এর আয়োজন করা হয়। এর আওতায় আসানসোল দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেট এলাকার বিভিন্ন পুজো কমিটিকে পুরস্কৃত করা হয়।
পুরস্কার প্রদান করেন আসানসোল দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেটের পুলিশ কমিশনার সুধীর কুমার নীলকান্তম। পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন ডিসি হেডকোয়ার্টার আনন্দ রায়, ডিসি ওয়েস্ট অভিষেক মোদি, এডিসিপি এসবি ইন্দ্র কাঞ্জিলাল, এডিসিপি ডি ডি সৌমিক সেনগুপ্ত, এসিপি সেন্ট্রাল দেবরাজ দাস, এসিপি ওয়েস্ট প্রতীক রাই, এসিপি অচিন্ত্য দে, আসানসোলের সিআই স্নেহময় চক্রবর্তী, ট্রাফিক ইন্সপেক্টর জিতেন্দ্র কুমার শর্মা, হিরাপুর ওসি প্রসেনজিৎ রায়, আসানসোল সাউথ ট্রাফিক গার্ড ওসি চিন্ময় মন্ডল, নর্থ ট্রাফিক গার্ড ওসি শুভেন্দু চ্যাটার্জী সহ অন্যান্য সমস্ত এসিপি , ইন্সপেক্টর এবং ওসি পদমর্যাদার পুলিশ
যাদের এই পুরস্কার দেওয়া হয় সেই কমিটিগুলির নাম আগেই ঘোষণা করা হয়েছিল।

riju advt

মাদকবিরোধী সচেতনতা বিভাগে, কল্যাণপুর সেক্টর তাদের মিশরীয় থিমের জন্য প্রথম পুরস্কার দেওয়া হয়েছিল। তাদের দেওয়া হয় ৫০০০ টাকা নগদ এবং একটি শংসাপত্র। আদি দুর্গাপূজা কল্যাণপুর কমিটি যারা গুপি গাইন বাঘা বাইন থিম করেছিল তারা দ্বিতীয় পুরস্কার পেয়েছে। তাদের ৪০০০ টাকা নগদ এবং একটি শংসাপত্র প্রদান করা হয়।

দুর্গাপুরের কোক ওভেন থানার অধীনে টিএন স্কুল দ্বারা মন্দির ওকে থিমে একই পূজার আয়োজন করা হয়েছিল। এন্টি ড্রাগস আওয়ারনেস বিভাগের অধীনে এই পূজা কমিটিকে ৩০০০ টাকা এবং শংসাপত্র প্রদান করা হয়। একই সঙ্গে সাইবার অপরাধ সচেতনতা বিভাগ কল্যাণপুর সার্বজনীনকে প্রথম পুরস্কার দেওয়া হয় যারা “চাষির ঘরে দুর্গা” থিম পূজার আয়োজন করেছিল।

সাইবার ক্রাইম আওয়ারনেস বিভাগে এই পূজা কমিটির প্রথম পুরস্কার ৫০০০ টাকা নগদ এবং একটি ট্রফি দেওয়া হয়। এই বিভাগের অধীনে অধীনে রাধানগর অ্যাথলেটিক ক্লাব দ্বিতীয় পুরস্কার পেয়েছে।রাধানগর অ্যাথলেটিক ক্লাব “রাজস্থানী গ্রাম” – র থিমে দুর্গা পূজার আয়োজন করেছিল। রাধানগর অ্যাথলেটিক ক্লাবকে ৪০০০ টাকা এবং একটি ট্রফি ও শংসাপত্র দেওয়া হয়। একইসঙ্গে “ধেমো মেন কোলিয়ারি পূজা কমিটি” এবার “বুর্জ খলিফা” থিমের উপর একটি পূজার আয়োজন করে, এই বিভাগে তারা তৃতীয় স্থান অর্জন করেছে। আসানসোল দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেট তাদের ৩০০০ টাকা, ট্রফি ও শংসাপত্র প্রদান করে।

নারী সুরক্ষা সচেতনতা বিভাগে মহিলাদের সুরক্ষাকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেওয়া হয়। ওমেন সেফটি আওয়ারনেস বিভাগে আপকার গার্ডেন সার্বজনীন দুর্গাপূজা কমিটি প্রথম স্থান অধিকার করেছে। এবার তারা “রক্তকরবী” থিমে একটি পূজার আয়োজন করে এবং তারা এই বিভাগে প্রথম স্থান পেয়েছে। এই পূজা কমিটিকে ৫০০০ টাকা, ট্রফি এবং একটি শংসাপত্র প্রদান করা হয়। “রঙের মেলা “র থিম পূজার আয়োজন করে দুর্গাপুরের অগ্রণী ক্লাবে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেছে। তাদের ৪০০০ টাকা, ট্রফি ও একটি শংসাপত্র দেওয়া হয়। এদিকে দুর্গাপুরের মার্কনি ক্লাব “মাটি” থিম পূজার আয়োজন করেছিল মহিলা সুরক্ষা সচেতনতা বিভাগে তারা তৃতীয় স্থান লাভ করে।
তাদের ৩০০০ টাকা, ট্রফি এবং একটি শংসাপত্র দেওয়া হয়।

সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ ক্যাম্পেনিং বিভাগে পুরস্কৃত করা হয়েছে রানীগঞ্জ শিশুবাগান সার্বজনীন দুর্গাপূজা কমিটি , আসানসোলের মিত্র সংঘ ও দুর্গাপুরের প্রথম আই আর ব্যাটালিয়ন কমপ্লেক্সের আরক্ষা বাহিনী সর্বজনীন দুর্গাপূজা কমিটিকে। ওই।তিনটি পূজা কমিটির প্রত্যেককে ২৫০০০ টাকার চেক ট্রফি ও শংসাপত্র দেওয়া হয়।

সড়ক দুর্ঘটনায় সহায়তার জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে একটি হেল্পলাইন নম্বর জারি করা হয়েছে। পুলিশ কমিশনার সুধীর কুমার নীলকান্তম বলেছেন যে আসানসোল-দুর্গাপুর পুলিশ সড়ক দুর্ঘটনার সময় জরুরী পরিস্থিতিতে সাহায্য করার জন্য দুর্ঘটনা হেল্পলাইন চালু করেছে। দুর্ঘটনার সময় সাহায্য চাইতে যে কেউ হেল্পলাইন নম্বর 8116604402 এ কল করতে পারেন। পুলিশ দ্রুত সাহায্যের জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *