DURGAPUR

দূর্গাপুরে রাজ্য পুলিশের এসটিএফের অভিযান, বাংলাদেশে পাচার হওয়ায় পথে আটক ২০ হাজার বোতল নিষিদ্ধ ফেনসিডিল সিরাপের বোতল

বেঙ্গল মিরর, দূর্গাপুর, রাজা বন্দোপাধ্যায়ঃ রাজ্য পুলিশের এসটিএফ বা টাস্ক ফোর্সের জালে ধরা পড়লো বিপুল পরিমাণে নিষিদ্ধ ফেনসিডিল সিরাপের বোতল। পশ্চিম বর্ধমান জেলার আসানসোল দূর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেটের দূর্গাপুরের নিউটাউনশিপ থানার (এনটিপিএস) ১৯ নং জাতীয় সড়কের এবিএল মোড় সংলগ্ন সার্ভিস রোডে শনিবার দুপুরে ময়দা বোঝাই একটি ট্রাক সহ ২০ হাজার ফেনসিডিল সিরাপের বোতল বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। এসটিএফ গ্রেফতার করে দুজনকে। তারা হলো ট্রাক চালক ও খালাসি। তাদের নাম শিবা প্রসাদ ও দেবা প্রসাদ। তারা উত্তরপ্রদেশের অযোধ্যার বাসিন্দা। রবিবার দুজনকে আসানসোল আদালতে তোলা হবে। এসটিএফ সূত্রে জানা গেছে, তাদেরকে হেফাজতে নেওয়ার জন্য আদালতে আবেদন করা হবে।


জানা গেছে, শনিবার দুপুরে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে বেঙ্গল পুলিশ বা রাজ্য পুলিশের এসটিএফ দূর্গাপুরের এবিএল মোড় সংলগ্ন সার্ভিস রোডে আটক করে মাল বোঝাই একটি ট্রাককে। এসটিএফের অফিসাররা দেখেন, ট্রাকের মধ্যে আছে ময়দা। এরপর ময়দা সরিয়ে তল্লাশি করতে সেখান থেকে পাওয়া যায় বিপুল পরিমাণে নিষিদ্ধ ফেনসিডিলের বোতল। ময়দার বস্তার আড়ালে লুকিয়ে রাখাছিল এই ফেনসিডিল সিরাপের বোতল।


  সূত্রের খবর, ঝাড়খণ্ডের রাঁচি থেকে বাংলা ঝাড়খণ্ড সীমান্ত পার করে জাতীয় সড়ক দিয়ে ময়দার আড়ালে মুর্শিদাবাদের জঙ্গিপুরে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল  এই নিষিদ্ধ সিরাপের বোতল। ঝাড়খণ্ডের রাঁচি থেকে  মুর্শিদাবাদের জঙ্গিপুর হয়ে বাংলাদেশে পাচার করার জন্য

এই সিরাপ নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। এর মধ্যে শনিবার দুপুরে রাজ্য পুলিশের এসটিএফ গোপন সূত্রে খবর পেয়ে ১৯ নং জাতীয় সড়কের এবিএল মোড় সংলগ্ন সার্ভিস রোডে আটক করে ঐ ট্রাকটিকে।
এসটিএফ সূত্রে জানা গেছে, এই ফেনসিডিল সিরাপের বাংলাদেশে দাম কোটি টাকারও বেশি। সেই দিক থেকে রাজ্য পুলিশের এই অভিযান বড়সড় সাফল্য বলা যেতে পারে।

Leave a Reply