ASANSOL

আসানসোলের সাতটি বিধানসভায় ১৮৪ টি টেবিলে গণনা

পশ্চিম বর্ধমানের জেলাশাসকের উপস্থিতিতে দু’দফায় কর্মীদের প্রশিক্ষণ

বেঙ্গল মিরর, আসানসোল, রাজা বন্দোপাধ্যায় ও সৌরদীপ্ত সেনগুপ্তঃ সারা দেশের সঙ্গে আগামী ৪ জুন আসানসোল লোকসভা কেন্দ্রের ভোট গণনা হবে। সেই কারণে গোটা গণনা প্রক্রিয়াকে সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে পশ্চিম বর্ধমান জেলা প্রশাসনের তরফে সবরকম পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।


সোমবার সকালে আসানসোল রবীন্দ্র ভবনে আসানসোল লোকসভা কেন্দ্রের সাতটি বিধানসভার গণনার সঙ্গে জড়িত গণনা কর্মী বা কাউন্টিং পার্সেনদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। এদিন মোট দু’দফায় গণনা কর্মীদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। পশ্চিম বর্ধমানের জেলাশাসক তথা আসানসোল লোকসভা কেন্দ্রের রিটার্নিং অফিসার বা আরও এস পোন্নাবলমের উপস্থিতিতে এই প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। অন্যদের মধ্যে ছিলেন আসানসোলের মহকুমাশাসক ( সদর) তথা আসানসোল উত্তর বিধান সভার এআরও বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য সহ সাতটি বিধান সভার এআরও ও অন্য আধিকারিকরা।


ভোট গণনার সাথে জড়িত কর্মীদের প্রশিক্ষণ দেওয়ার সময় গণনার দিন কিভাবে এই দায়িত্ব পালন করতে হয় সে সম্পর্কে অবহিত করা হয়।
পরে জেলাশাসক বলেন, এদিন ভোট গণনার সঙ্গে যুক্ত কর্মীদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। প্রথম ধাপে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে কর্মী ও সুপারভাইজারদেরকে। এরপর মাইক্রো অবজার্ভারদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হন। জেলাশাসক আরো বলেন, সবাইকে আগামী ৪ জুন ভোট গণনার কাজে যুক্ত করা হবে।


জানা গেছে, মোট ১৮৪ টি টেবিলে এই ভোট গণনা করা হবে। তারমধ্যে ১৫৫ টি টেবিল ব্যবহার করা হবে ইভিএমের গণনায়। বাকি টেবিল পোষ্টাল ব্যালট ও অন্য কাজে ব্যবহারের জন্য নির্দিষ্ট করা হয়েছে। সবচেয়ে বেশি ২৬ টি করে টেবিল আসানসোল উত্তর ও আসানসোল দক্ষিণ বিধান সভার জন্য। সবচেয়ে কম ১৮ টি টেবিল থাকবে পান্ডবেশ্বর বিধানসভায়। সকাল আটটার সময় পোস্টাল ব্যালট দিয়ে গণনা শুরু হবে। তারপর হবে ইভিএমের ভোট গণনা। সবচেয়ে বেশি ১৪ রাউন্ড ও সবচেয়ে কম ১২ রাউন্ড গণনা করা হবে বলে প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে। সরাসরি গণনার সঙ্গে যুক্ত থাকবেন ৭৫০ জন। এছাড়াও আরো ৫০০ জন ৪ জুন গণনা কেন্দ্রে থাকবেন।


আসানসোল লোকসভা কেন্দ্রের গণনা হবে আসানসোলের সেনরেল রোডে ১৯ নং জাতীয় সড়কের জুবিলি মোড় সংলগ্ন আসানসোল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে। এরজন্য গণনা কেন্দ্রে ত্রিস্তরীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় বাহিনীর সঙ্গে থাকবে রাজ্য পুলিশও।

Leave a Reply