করোনা ভাইরাস প্রসঙ্গে জাতির উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ ; ২২ শে মার্চ রবিবার জনতা কার্ফু পালনের নির্দেশ:

বেঙ্গল মিরর, কলকাতা, ২০ শে মার্চ, ২০২০, সৌরদীপ্ত সেনগুপ্ত :   
 নভেল করোনা ভাইরাস  রুখতে পদক্ষেপ গ্রহণ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বৃহস্পতিবার জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিতে গিয়ে এই ঘোষণা করলেন তিনি।
  আগামী রবিবার ২২ শে মার্চ ২০২০ পালন করতে হবে জনতা কার্ফু এবং দেশ জুড়ে  এই জনতা কার্ফু পালন করার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

riju advt

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘জনতা কার্ফু’ হল জনতার দ্বারা, জনতার জন্য নিজেদের উপর জারি করা কার্ফু। ওই দিন সকাল ৭ টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত কেউ বাড়ি থেকে বেরোবেন না।’ এইভাবে সংযম অভ্যাস করার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। তাঁর দাবি, এটা হবে দেশহিতের জন্য একটা প্রতীক।
এছাড়া, ওইদিন বিকেল ৫ টায় সাইরেন বাজানো হবে। সেইসময় দেশের সব মানুষ জানালায়, দরজায় বা ব্যালকনিতে দাঁড়াবে। ডাক্তার, চিকিৎসাকর্মী, পরিবহন কর্মীর মত যেসব মানুষ নিজেদের প্রাণের তোয়াক্কা না করে মানুষের জন্য কাজ করছেন, তাঁদের ধন্যবাদ জানানো হবে সেদিন।
মোদী বলেন, করতালি দিয়ে, ঘণ্টা বাজিয়ে অভিবাদন জানাতে হবে তাঁদের।
এদিন তিনি আরও বলেন, ‘আগে যখন যুদ্ধ পরিস্থিতি হত, তখন বিভিন্ন জায়গায় ব্ল্যাক আউট করে দেওয়া হত। যুদ্ধ না হলেও ব্ল্যাকআউটের ড্রিলও হত বছরে এক-দু’বার।
প্রধানমন্ত্রীর আর্জি, ‘আগামী কয়েক সপ্তাহ বাড়ি থেকেই কাজ করার চেষ্টা করুন। খুব প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বেরোবেন না।’ ইমার্জেন্সী কাজে যারা যুক্ত যেমন ডাক্তার, পুলিশ এমনকি মিডিয়ার মানুষেরা তো তাদের কাজের প্রয়োজনে যথাযথ ব্যবস্থা নিয়ে কাজে বেরোবেনই। 
তাঁর কথায়, কেউ যদি মনে করেন যে আপনি ঠিক আছেন, আপনার কিছু হবে না। এই ভেবে যদি সব জায়গায় ঘোরাফেরা করেন, তাহলে আপনি ঠিক নন। আপনি আপনার পরিবারের সঙ্গে অন্যায় করবেন।
তিনি আরও বলেন, ‘সামাজিক দূরত্ব অত্যন্ত জরুরি। সংকল্প বা সংযমের দ্বারাই এই ভাইরাস থেকে বাঁচতে হবে। আমরা সংক্রমণ থেকে নিজেদের বাঁচাব, অন্যদেরও বাঁচাব। আমরা সুস্থ থাকলে, জগৎ সুস্থ থাকবে।’ 
এদিকে এই জনতা কারফিউ লাগু করতে তিনি দেশের সমস্ত রাজ্যের রাজ্য সরকারকে আবেদন করেছেন  তারা যেনো এটি সঠিকভাবে পালন করতে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করেন।
এদিকে সূত্র মারফত খবর পাওয়া যায় অনেক জায়গায়  নাকি দোকানে ভিড় জমিয়েছেন অনেকে বাড়িতে ভবিষ্যতের জন্য অত্যাবশ্যকীয় পণ্য মজুত রাখার জন্য। যদিও এ রাজ্যে মুখ্যমন্ত্রী  রাজ্যবাসীর কাছে আবেদন জানিয়েছেন কোনো কিছুতে বিভ্রান্ত না হবার জন্যে এবং ভিড়ের মধ্যে না যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।