আসানসোল উমারানি গরাই মহিলা কল্যান গার্লস হাইস্কুল, জন্মদিন পালন ও দ্বিবার্ষিক পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠান

বেঙ্গল মিরর, আসানসোল, রাজা বন্দোপাধ্যায় ও সৌরদীপ্ত সেনগুপ্তঃ আসানসোল উমারানি গরাই মহিলা কল্যান গার্লস হাইস্কুলের দ্বিবার্ষিক পুরষ্কার বিতরণ হলো মঙ্গলবার। একইসঙ্গে এদিন স্কুলের ৯২ তম জন্মদিনও পালন করা হয়। এই উপলক্ষে এদিন সকালে স্কুলে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিলো। উদ্বোধনী সংগীতের সঙ্গে প্রদীপ জ্বালিয়ে এদিনের অনুষ্ঠানের শুভসূচনা করেন রানিগঞ্জের বিধায়ক তথা আসানসোল দূর্গাপুর উন্নয়ন পর্ষদ বা আড্ডার চেয়ারম্যান তাপস বন্দোপাধ্যায়।

riju advt

অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আসানসোলের স্কুল পরিদর্শক বা এসআই তথা স্কুল পরিচালন সমিতির সভাপতি সন্দীপ কোঁরা, প্রাক্তন প্রধান শিক্ষিকা কল্পনা বিশ্বাস, প্রবীণ শিক্ষাবীদ ডঃ প্রশান্ত কুমার দে সরকার ও স্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষিকা তথা বর্তমান টিচার ইনচার্জ পাপড়ি বন্দোপাধ্যায়। স্কুলের জন্মদিন উপলক্ষে অনুষ্ঠানের অতিথি, স্কুল শিক্ষিকা ও পড়ুয়ারা মোমবাতি জ্বালান।


তাপস বন্দোপাধ্যায় বলেন, শুধু আসানসোল বা জেলা নয় রাজ্যের শিক্ষা ক্ষেত্রে এই স্কুলের একটা অবদান আছে। এই স্কুলের অনুশাসনই বারবার সফলতা এনে দিচ্ছে। এই অনুশাসন শুধু পড়ুয়ারা নয়, শিক্ষিকা থেকে অভিভাবক সবাই মেনে চলেন।
পুরষ্কার বিতরণের একবারে শুরুতে ২০২২ সালের মাধ্যমিক পরীক্ষায় রাজ্যে তৃতীয় হওয়া অনন্যা দাসগুপ্তকে বই ও স্মারক দিয়ে সম্বর্ধনা জানান তাপস বন্দোপাধ্যায় সহ অন্যান্যরা। একইসঙ্গে সম্বর্ধনা দেওয়া হয় ২০২০ সালের মাধ্যমিক পরীক্ষায় রাজ্যে নবম স্থান পাওয়া অনুশ্রী ঘোষকেও।


এদিনের অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ক্লাসে ২০৩ পড়ুয়াকে পুরষ্কার দেওয়া হয়। এই পড়ুয়ারা গত ২ বছরে বিভিন্ন ক্ষেত্রে সফল হয়েছে। তবে এই স্কুলের পুরষ্কার দেওয়ার বিভাগে দুটি বিশেষ বিভাগ রয়েছে। একটি হলো ” শোভন সুন্দর আচরণ “। এই বিভাগে এবার পুরষ্কার পেয়েছে একাদশ শ্রেণির ঈশিতা মাজি। অন্য বিভাগটি হলো ” আমিও পারি “। এবার এই পুরষ্কার পেয়েছে দূরারোগ্য ব্যাধি ক্যান্সারকে সঙ্গী করে ২০২২ সালের মাধ্যমিক পরীক্ষায় সফল হওয়া অদৃজা চট্টোপাধ্যায়। অদৃজা বর্তমানে এই স্কুলেই একাদশ শ্রেণিতে পড়ছে।
পুরষ্কার বিতরণের পাশাপাশি এদিন স্কুল পড়ুয়ারা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানেও অংশ নিয়েছিলো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *