ASANSOL

বার্নপুর সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার কমিটি ভলান্টারি ব্লাড ডোনার্সের ৪১ বছর পূর্তি অনুষ্ঠান

বেঙ্গল মিরর, আসানসোল, সৌরদীপ্ত সেনগুপ্ত ও রাজা বন্দোপাধ্যায় : বার্নপুর সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার কমিটি ভলান্টারি ব্লাড ডোনার্সের ( BSWCVD) ৪১ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে মঙ্গলবার আসানসোল রবীন্দ্রভবনে এক বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় । রক্তদান আন্দোলনের অন্যতম অধ্যাপক দেবব্রত রায়ের প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হয় এদিনের অনুষ্ঠানে ।



প্রদীপ জ্বালিয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন পশ্চিম বর্ধমান জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক সিএমওএইচ ডাঃ ইউনুস খান, ডেপুটি সিএমওএইচ (৪) ড: অনন্যা মুখার্জি, ভিবিডি ডাঃ স্বরজিৎ রায়, আইনজীবী অমিতাভ মুখোপাধ্যায়, আসানসোল পুরনিগমের মেয়র পারিষদ গুরুদাস চ্যাটার্জি,  ব্যবসায়ী ও সমাজসেবী প্রদীপ ঠাকুর, দীপক রুদ্র, হরিনারায়ন মিশ্র, কাউন্সিলর মৌসুমী বসু, আসানসোল দক্ষিণ থানার আইসি কৌশিক কুন্ডু,  সুরজিত সিং মক্কর অন্যান্যরা । এছাড়াও ছিলেন আসানসোল মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান অমরনাথ চ্যাটার্জি, কলকাতার মানিকতলার সেন্ট্রাল ব্লাড ব্যাংকের ডাইরেক্টর ডাঃ স্বপন সোম , ডেপুটি ডাইরেক্টর, জয়েন্ট ডাইরেক্টর ডাঃ বরুণ সাঁতরা, অ্যাসিস্ট্যান্ট ডাইরেক্টর ছাড়াও আসানসোল জেলা হাসপাতালের সুপারিনটেনডেন্ট ড: নিখিল চন্দ্র দাস ও জেলা হাসপাতাল ব্লাড ব্যাংক ইনচার্জ ড: সঞ্জিৎ চ্যাটার্জি, কাউন্সিলর সোনা গুপ্ত ও কাহকাশা রিয়াজ, সন্তোষ দত্ত, প্রবোধ রায়, তন্বিমা ধর, তনুশ্রী ধর।
আসানসোল প্রগতি ও বি.এন ঘাঁটি, জয়দীপ মুখার্জি, হরিনারায়ন মিশ্রকে ড: কার্ল ল্যান্ডস্টেইনার আওয়ার্ড দিয়ে সম্মানিত করা হয়।
এদিনেরঅনুষ্ঠানে সেন্ট্রাল ব্লাড ব্যাংকের পক্ষ থেকে প্রবীর ধরকে সম্মানিত করা হয়।



শিল্পাঞ্চলের রক্তদান আন্দোলনের নেতা প্রবীর ধরের নেতৃত্বে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
বিভিন্ন সম্মানীয় বক্তারা জানান, প্রবীর ধর গত ৪১ বছর ধরে শুধু শিল্পাঞ্চলে নয়, অন্যান্য এলাকায়ও রক্তদান করে আসছেন। রক্তদানকে তিনি আন্দোলনের রূপ দিয়েছেন। আজ সেই সংগঠনের ৪১ বছর পূর্তি। বিভিন্ন ক্লাবে যারা ভালো কাজ করছেন তাদের সম্মানিত করা হয়। সোমবার এই অনুষ্ঠান উপলক্ষে বার্ণপুরে রক্তদান নগরে  কালিপূজো করা হয়।



শুধু প্রবীর ধর নয়, তার পরিবারের পরবর্তী প্রজন্মও এই মহৎ কাজটি করছে, কিন্তু আজও এমন অনেক মানুষ আছে যারা রক্তদানে ভয় পান। জনগণ সচেতন রক্তদানকে আরও এগিয়ে নিতে এ ধরনের কর্মসূচির আয়োজন করা খুবই প্রয়োজন। অবদান রাখা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কার প্রদানের পাশাপাশি সম্মানিত করা হয় বিশিষ্ট ব্যক্তিদেরকেও।

Leave a Reply