মন্ত্রী পূর্ণেন্দু বসুর প্রচেষ্টায় ১১ হাজার মানুষ পাবেন রেশন

বেঙ্গল মিরর, কোলকাতা: মুখ্যমন্ত্রী শ্রীমতি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছিলেন যে এই অসময়ে আমাদের বাংলায় একজনকেও তিনি অভুক্ত থাকতে দেবেন না ।

riju advt

তাঁর সেই ঘোষণা মতো যাদের ডিজিটাল রেশন কার্ড আছে, তারা বিনামূল্যে 5 কিলো করে খাদ্যশস্য সহ রেশন পাচ্ছেন,  এপ্রিল থেকে সেপ্টেম্বর মাসের জন্য । 
যারা ডিজিটাল রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করেছিলেন, তারাও ডিএম অফিস থেকে কুপন বা টোকেন পেয়েছেন, যাতে বিনামূল্যে ছ মাস রেশন পাওয়া যায় ।
যারা ডিজিটাল রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করেননি, তাদের জন্যেও ডিএম – এর মাধ্যমে জেনারেল রিলিফের চাল পাওয়ার কথা মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেছিলেন । 

সেই মতো রাজারহাট গোপালপুর বিধানসভার বিধায়ক, রাজ্যের কারিগরি শিক্ষা, প্রশিক্ষণ ও দক্ষতা উন্নয়ন মন্ত্রী মাননীয় শ্রী পূর্ণেন্দু বসু তার বিধানসভা কেন্দ্রে বিধাননগর পৌর নিগমের 16 টি ওয়ার্ডের 11 হাজার মানুষের নাম সার্ভে করে বার করেন, যারা ডিজিটাল রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করেননি  । 
এবং এই 16 টি ওয়ার্ডের 11,000 মানুষের নাম ও ফোন নাম্বার ওয়ার্ড ভিত্তিক তিনি টাইপ করে মেইল করেন উত্তর 24 পরগনার জেলাশাসক, বিধান নগর পুলিশ কমিশনারেট ও বিধান নগর পৌর নিগমের মহানাগরিক কে  ।

advt.


মাননীয় পূর্ণেন্দু বসুর অনুরোধে মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী এই 11,000 ডিজিটাল রেশন কার্ডের আবেদন না করা সাধারণ মানুষের জন্য প্রথম দফার জেনারেল রিলিফের চাল মাননীয় জেলা শাসক, উত্তর 24 পরগনা  মাননীয় মহকুমাশাসক, বিধাননগর –  মাননীয়া মহানাগরিক, বিধাননগর পৌরনিগম –  মাননীয় পুলিশ কমিশনারেট, বিধাননগর – এর মাধ্যমে 
বিধান নগর পৌর নিগমের 15 টি ওয়ার্ড এর জন্য বাগুইহাটি থানা 
ও বিধাননগর পৌরনিগমের আর 1টি ওয়ার্ড এর জন্য নিউটাউন থানা 
এবং রাজ্যের রেশন ডিলার দের অ্যাসোসিয়েশন এর অন্তর্ভুক্ত স্থানীয় এলাকার ডিলারদের কাছে 
জেনারেল রিলিফের প্রথম দফার চাল আসে ।

আজ 30 এপ্রিল, 2020  বৃহস্পতিবার থানা নির্দিষ্ট চারটি জায়গায় বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ থেকে সংলগ্ন মাঠে সোশ্যাল ডিস্টান্সিং মেন্টেইন করে 
পুলিশ আধিকারিকদের সহযোগিতায় এই 11 হাজার মানুষের বেশিরভাগই প্রথম দফার জেনারেল রিলিফের চাল পান ।
অল্প বাকি কিছু আগামীকালই বাকিরা পেয়ে যাবেন ।

এই অসামান্য সহযোগিতার জন্য এলাকাবাসীদের পক্ষে সব আর্থিক ভাবে পিছিয়ে পড়া ও ডিজিটাল রেশন কার্ড আবেদন না করা সাধারণ মানুষজন ও মা ভাই বোনেরা মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী কে, স্থানীয় বিধায়ক মাননীয় মন্ত্রী পূর্ণেন্দু বসুকে, 
উত্তর 24 পরগনার জেলাশাসককে,  বিধাননগর পৌরনিগমের মহানাগরিককে,  বিধাননগর পুলিশ কমিশনারেটকে 
ও বিশেষ করে বাগুইহাটি থানা ও নিউটাউন থানার পুলিশ আধিকারিকদের কে আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়েছেন ।

আগামী মাস থেকে প্রতি মাসের তৃতীয় সপ্তাহে এই জেনারেল রিলিফের চাল একইভাবে এই 11 হাজার মানুষ এই বিধানসভা এলাকায় পেয়ে যাবেন ।