বিজেপি ও তৃণমূল কংগ্রেসের সংঘর্ষে চিত্তরঞ্জন থানায় দুই পক্ষের হইচই

বেঙ্গল মিরর, রিক্কী বাল্মীকি ,চিত্তরঞ্জন :-চিত্তরঞ্জন সিমজুড়ি এলাকায় বৃহস্পতিবার রাতে ঘর ভাড়া নিয়ে মুন্নি দেবীর সঙ্গে ভাড়াটিয়া কবিতা মণ্ডলের ঝামেলার সৃষ্টি হয়।সেই ঝামেলা হাতাহাতিতে পরিণত হয়।দুই পক্ষ এই ঝগড়ার মধ্যে দিয়ে আহত হন।

riju advt


সেই ঝামেলা পরবর্তী কালে তৃণমূল ও বিজেপির দুই দলের ঝামেলার রাজনৈতিক আকার দেয়।
সূত্র অনুসারে জানা যায়, সিমজুড়িতে মুন্নি দেবীর মাটির বাড়িতে কবিতা মণ্ডল ভাড়ায় থাকতেন,তাদের মধ্যে এই ঘর খালি করা নিয়ে বিবাদ সৃষ্টি হয়।পরে কিছু লোকজন এসে মুন্নি দেবীর উপর আঘাত করেন।পরে মুন্নি দেবীর পরিবারের লোকজন কবিতা মণ্ডলের উপর আঘাত করে।
যেহেতু মুন্নি দেবী তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীর মা ও কবিতা মণ্ডল বিজেপি পাটির সক্রিয় কর্মী।তাই ঝামেলা পার্টি গত আকার দেয়।
আহত মুন্নি দেবীকে চিত্তরঞ্জন কেজি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এবং আহত কবিতা মণ্ডল কে আসানসোল জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
শুক্রবার এই ঝামেলা বিশাল আকার দেয় তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে প্রথমে চিত্তরঞ্জন থানায় লিখিত অভিযোগ করার পাশাপাশি থানা ঘেরাও করা হয়, এবং একি সময় বিজেপির তরফে লিখিত অভিযোগ করা হয় ও থানা ঘেরাও করা হয় সেই সময় দুই দলের মধ্যে নারা বাজি এবং কথা কাটাকাটি সৃষ্টি হয়,অবশেষে
চিত্তরঞ্জন থানার পুলিশ দুই পক্ষকে শান্ত করেন।
এই ঘটনা প্রসঙ্গে চিত্তরঞ্জন তৃণমূল কংগ্রেসের ব্লক সভাপতি তাপস ব্যানার্জী বলেন মুন্নি দেবীর
বাড়িতে কবিতা মণ্ডল ভাড়ায় থাকেন,এবং সেই বাড়িতে যত রকমের অপকর্ম হয় তা কবিতা মণ্ডল ও তার পরিবার করে থাকে, এই কথা ঘরের মালকিন যখন জানতে পারে তখন কবিতা মণ্ডলকে বাড়ি খালি করার কথা বলতে যায়,সেই সময় চিত্তরঞ্জনের বিজেপি দলের এক গুন্ডা যার নাম কেশব ক্যাংড়া নামে এক ব্যাক্তি মুন্নি দেবীকে আঘাত করেন।এবং আহত অবস্থায় মুন্নি দেবীকে কেজি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।তার পর যে সময় আমাদের দলের তরফে চিত্তরঞ্জন থানায় আমরা অভিযোগ করতে যায়,সেই সময় চিত্তরঞ্জন শহরকে অশান্তি করতে বিজেপি তরফে বহিরাগত কিছু গুন্ডাবাহিনী এনে থানার সামনে ঝামেলার সৃষ্টি করার চেষ্টা করে, আমাদের দাবি ওই বিজেপির গুন্ডা কেশব ক্যাংড়াকে অবিলম্বে গ্রেফতার করতে হবে।
তাছাড়া এই ঘটনা সম্পর্কে বিজেপি নেতা মনীশ ঝাঁ বলেন কবিতা মণ্ডল আমাদের দলের সক্রিয় কর্মী যেনে বুজে একটা ছোট ঝামেলাকে বড়ো আকার দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেসের কিছু গুন্ডা বাহিনীর মিলে,বৃহস্পতিবার রাতে তৃণমূল কংগ্রেসের পোষা গুন্ডা অনিল বাল্মীকি,সত্য বাল্মীকি, সুরজ বাল্মীকি নামে তিন ব্যাক্তি মিলে কবিতা মণ্ডলের উপর আঘাত করেন,তার বাড়িতে ভাঙ্গচুর করেন,আহত কবিতা মণ্ডলকে আমরা আসানসোল জেলা হাসপাতালে ভর্তি করি, তাছাড়া এই বিষয়ে আমরা চিত্তরঞ্জন থানায় অভিযোগ করতে গেলে তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে অশান্তির সৃষ্টি করা হয়, আমাদের গাড়িতে পাথর ছোঁড়া হয়,লাঠি হাতে নিয়ে আমাদের কর্মীদের ভয় দেখানো হয়,যাতে আমরা ভয়ে পালিয়ে যায়,তিনি আমরা সংঘর্ষ করে তৃণমূল কংগ্রেসের এই তিন গুন্ডার নামে অভিযোগ করি এবং প্রশাসনকে পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছি অবিলম্বে তাদের গ্রেপ্তার করতে তা যদি না হয় তবে আগামী দিনে আমার বৃহত্তম আন্দোলন গড়ে তুলবো।আমাদের দাবি পুলিশ যেনো এই ঘটনার সঠিক বিচার করে।
পুলিশ সূত্রে জানা যায় এই ঘটনা জেরে অভিযুক্ত বিজেপি কর্মী কেশব ক্যাংড়াকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেন,এবং পুলিশ এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।