ASANSOL

নতুন বছরে সুন্দর আসানসোল করতে উদ্যোগী পুরনিগম, হকারদের সঙ্গে বৈঠকে পুর প্রশাসক

বেঙ্গল মিরর, রাজা বন্দোপাধ্যায়, আসানসোল, ২০ ডিসেম্বরঃ আসানসোলের জিটি রোডের বাজার এলাকার ফুটপাত বলতে গেলে পুরোটাই দখল করে নিয়েছে হকাররা। আর জিটি রোডের একটা বড় অংশে রয়েছে পার্কিং জোন। পথে নেমে এখন সাধারণ মানুষের যাতায়াত করাই দায় হয়ে দাঁড়িয়েছে। এমন অবস্থায় শহরের মানুষের মধ্যে ক্ষোভ ক্রমেই বাড়ছে।


তাই এবার আসানসোল বাজার এলাকার ফুটপাত সমস্যার সমাধানে উদ্যোগী হলো আসানসোল পুরনিগম। সোমবার পুরভবনে আসানসোল বাজারের আসানসোল দক্ষিণ থানা থেকে রাহালেন মোড় পর্যন্ত হকারদের সঙ্গে এক বৈঠক করেন পুর প্রশাসক অমরনাথ চট্টোপাধ্যায়। সেই বৈঠকে পুর প্রশাসক হকারদের বার্তা দিয়ে বলেন, শহর সবার।

পুরোপুরি দখল করে নিয়ে ব্যবসা করা চলবে না। ব্যবসার জন্য দোকান ছোট করে নিতে হবে। জায়গা ফাঁকা রাখতে হবে, যাতে বাজারে মানুষেরা স্বাচ্ছন্দ্যের সঙ্গে হাঁটাচলা করতে পারেন। রাস্তা দিয়ে এ্যাম্বুলেন্স সহ অন্য গাড়ি স্বাভাবিক ভাবে যাতায়াত করতে পারে তাও দেখতে হবে। কোন জায়গা থেকে যাতে আর কোন অভিযোগ না আসে সেদিকে নজর তাদেরকেই রাখতে হবে। পুর প্রশাসক হকারদের পরিষ্কার করে বলেন, এই নির্দেশ মানা না হলে, পুর প্রশাসন আইনগত ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হবে।


বৈঠক শেষে হকারদের তরফে পাপ্পু কুমার বলেন, পুর প্রশাসকের সঙ্গে বৈঠক করা হয়েছে। তিনি আমাদের কিছু নির্দেশ দিয়েছেন। সেগুলো আমরা মেনে চলবো।
পরে পুর প্রশাসক বলেন, নতুন বছরে আমরা সুন্দর একটা আসানসোল দিতে বদ্ধপরিকর। আসানসোল দক্ষিণ থানা থেকে রাহালেন সহ অন্য জায়গার ফুটপাতে হকারেরা রয়েছে। এদিন তাদেরকে কি করতে হবে, তা বলে দেওয়া হয়েছে। বাজারের ফলপট্টি ও সবজি মান্ডি যারা করে তাদেরও বলে দেওয়া হয়েছে। যদি পুরনিগমের নির্দেশ মানা না হয়, তাহলে পুলিশকে দিয়ে আইনী পদক্ষেপ করা হবে। তিনি আরো বলেন, পুরনিগমের তরফে দ্রুত একটা বৈঠক করা হবে। পুলিশের পাশাপাশি ঐ বৈঠকে জেলা আরটিও, পশ্চিম বর্ধমান জেলা তৃনমুল কংগ্রেসের জেলা সভাপতি অভিজিৎ ঘটক, তৃনমুল কংগ্রেসের রাজ্য নেতা ভি শিবদাসন তরফে দাসু, বড়বাস ও মিনিবাস এ্যাসোসিয়েশনের প্রতিনিধি সহ সবাইকে ডাকা হবে।

সেখানে আলোচনা করে সবার মতামত নিয়ে সুন্দর আসানসোল করতে একটা পরিকল্পনা নেওয়া হবে।
তবে শুধু আসানসোল আসানসোল বাজার নয়, জিটি রোডের গীর্জা মোড় থেকে মূর্গাশোল সহ শহরের সব ব্যস্ততম রাস্তার ফুটপাত বলতে কিছুই নেই। খালি চোখে দেখাই যায় না। সব দখল হয়ে গেছে।
শহরের মানুষের একাংশ থেকে বিরোধীদের এখানেই প্রশ্ন, বছর ঘুরলেই আসানসোল লোকসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচন ও আসানসোল পুরনিগমের ভোট। ফুটপাত দখল করে রাখা হকার ও দোকানিরা একটা বড় ভোট ব্যাঙ্ক। এমন পরিস্থিতিতে আদৌও কি কোন বড় পদক্ষেপ নেওয়া হবে? না সবকিছুই লোক দেখানো। এই প্রশ্নের উত্তর সময়ই বলবে।