আসানসোলে এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চের হানা, মশা মারার নকল ধুপের কারবারের অভিযোগ , আটক ৩

বেঙ্গল মিরর, আসানসোল, রাজা বন্দ্যোপাধ্যায় ও সৌরদীপ্ত সেনগুপ্তঃ একটি নামী কোম্পানির নকল মশা মারার ধুপের কারবারের অভিযোগ পেয়ে আসানসোল শহরে আসানসোল দূর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেটের এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চ বা ইবির অভিযান। সোমবার সকাল ও দুপুরে আসানসোল দক্ষিণ থানার এসবি গরাই রোডের পুরনো আইএমএ হাউস সংলগ্ন ও বুধার নামোপাড়া এলাকায় পুলিশকে সঙ্গে সঙ্গে দুটি বাড়িতে ইবির অফিসাররা অভিযান চালায়। এই অভিযানে ২ লক্ষাধিক টাকার নকল ধূপকাঠি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। আটক করে জেরা করা হচ্ছে তিনজনকে। আসানসোলের এসবি গরাই রোডের পুরনো আইএমএ হাউস সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা সম্পর্কে ভাই হলো এই তিনজন। তারা বুধার নামো পাড়ায় একটি বাড়ি ভাড়া নিয়ে, সেখানে এই ধুপ মজুত করতো বলে আসানসোল দুর্গাপুর পুলিশের এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চের অফিসাররা জানান। গোটা অভিযান নিয়ে ইতিমধ্যেই লিখিত ভাবে আসানসোল দক্ষিণ থানায় এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চের তরফে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তার ভিত্তিতে পুলিশ একটি মামলা দায়ের করেছে।

riju advt


জানা গেছে, এদিন সকালে প্রথমে এসবি গরাই রোডের পুরনো আইএমএ হাউস সংলগ্ন এলাকায় একটি বাড়িতে পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে হানা দেয় এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চ। পরে আসানসোল দক্ষিণ থানার বুধা এলাকায় একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ নকল ধূপকাঠি বাজেয়াপ্ত করা হয়। যার বাজার মূল্য ২ লক্ষাধিক টাকা বলা হচ্ছে।গোপন তথ্যের ভিত্তিতে অভিযোগ পেয়ে সোমবার হঠাৎ করেই এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চের অফিসাররা অভিযান চালায়। দুটি নামী কোম্পানির এই ধূপ বলে জানা গেছে।

উল্লেখ্য, আসানসোলে এর আগেও এই ভাবে নামী কোম্পানির নকল ধূপ বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। ঐসব কোম্পানির কাছে অভিযোগ ছিল যে তাদের তৈরি করা ধূপ ব্যবহার করার পরেও মশা মরছে না। তারপর তারা নিজেদের মতো করে খবর নিয়ে জানতে পারে যে, তাদের কোম্পানির ধূপের অবিকল আসলের মত দেখতে প্যাকেট তৈরি করে নকল ধূপ বিক্রির একটা চক্র চলছে এই এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে। এরপর তারা এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চে অভিযোগ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *