আসানসোলে বন্ধ ঘর থেকে মহিলার পচাগলা ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, চাঞ্চল্য

বেঙ্গল মিরর, আসানসোল, রাজা বন্দ্যোপাধ্যায় ও সৌরদীপ্ত সেনগুপ্তঃ আসানসোলের হিরাপুর থানার ইসমাইলের ৬০ ফুট রাস্তায় ইন্দ্রপ্রস্থ ( পশ্চিম) এলাকায় বন্ধ একটি বাড়ির ভেতর থেকে এক মহিলার পচাগলা মৃতদেহ উদ্ধারকে ঘিরে সোমবার সকালে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে। বাড়ির ভেতরে একটি ঘরের মধ্যে থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় ঐ মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে হিরাপুর থানার পুলিশ পৌঁছায়। পুলিশ মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য আসানসোল জেলা হাসপাতালে পাঠায়।পুলিশের প্রাথমিক তদন্তের পরে অনুমান, মানসিক অবসাদে আত্মঘাতী হয়েছেন ঐ মহিলা। মৃতার নাম অনিতা ওরফে হেমা যাদব ( ৬০)।

riju advt

জানা গেছে, আসানসোলের ইসমাইলে ৬০ ফুট রাস্তায় ইন্দ্রপ্রস্থ ( পশ্চিম) এলাকায় একটি বাড়িতে থাকতেন অনিতা ওরফে হেমা যাদব। তার এক মেয়ে বাইরে থাকেন। এলাকার বাসিন্দারা বলেন, এই মহিলার সঙ্গে তার এক বোন থাকতেন। বেশ কিছুদিন হলো তিনি থাকতেন না। গত কয়েক দিন ধরে ঐ বাড়ি আশপাশ থেকে এলাকার বাসিন্দারা দুর্গন্ধ বার হতে দেখেন। তারা ভাবেন কিছু পচে গন্ধ বেরোচ্ছে। পাশাপাশি এলাকার বাসিন্দারা এও লক্ষ্য করেন যে, ঐ বাড়ির বাইরে শাড়ি কয়েকদিন ঝুলছে। কিন্তু অনিতা ওরফে হেমা যাদবকে দেখা যাচ্ছে না।

সোমবার সকাল থেকে ঐ বাড়ি থেকে একবারে পচা দুর্গন্ধ বার হতে দেখে বাসিন্দাদের সন্দেহ হয়। এক/দুজন বাড়ির দরজা বন্ধ থাকায়, একটা জানালায় উঁকি দেন। তখন তারা বুঝতে পারেন যে, এই বাড়ির ভেতর থেকে দূর্গন্ধ বেরোচ্ছে। সঙ্গে সঙ্গে তারা এলাকায় কাউন্সিলর ( আসানসোল পুরনিগমের ৮৩ নং ওয়ার্ড) মহঃ হাসরাতুল্লা ওরফে বাপিকে খবর দেন। তিনি সঙ্গে সঙ্গে সেখানে আসেন। খবর পেয়ে এলাকায় আসে হিরাপুর থানার পুলিশও। ঐ বাড়ির সামনে এলাকার বাসিন্দারা ভিড় জমান। পুলিশ দরজা খুলে ভেতরে ঢুকে দেখে, একটা ঘরে সিলিংয়ে ঝুলছে মহিলার মৃতদেহ। একদম পচে যাওয়ায়, তার থেকে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। এরপর পুলিশ সেই মৃতদেহ উদ্ধার করে নিয়ে যায় আসানসোল জেলা হাসপাতালে।


ওয়ার্ড কাউন্সিলর বলেন, এদিন সকালে একটা বাড়ি থেকে দুর্গন্ধ বেরোনোর খবর পেয়ে ইন্দ্রপ্রস্থ ( পশ্চিম) এলাকায় আসি। পুলিশ এসে ঐ বাড়ি থেকে এক মহিলার পচাগলা ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করেছে। জেনেছি ঐ মহিলা একা থাকতেন।
এদিকে, পুলিশ জানায়, ঐ মহিলা কোন কারণে মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন। দেহের অবস্থা দেখে মনে হচ্ছে, বেশ কিছু দিন আগে তিনি গলায় দড়ি দিয়ে আত্মঘাতী হয়েছেন। তার মেয়ে বাইরে থাকেন। তার সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হচ্ছে। তদন্ত শুরু করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *