ইসিএলের অবসরপ্রাপ্ত কর্মীর আবাসনে ভরদুপুরে দুঃসাহসিক চুরি, লুঠ কয়েক লক্ষ টাকার সামগ্রী

বেঙ্গল মিরর, আসানসোল, রাজা বন্দ্যোপাধ্যায়ঃ গৃহকর্তা ও গৃহকত্রী ঘন্টা তিনেকের জন্যে বাইরে গেছিলেন। তারমধ্যেই তিনতলার আবাসনে ভরদুপুরে দরজার তালা ভেঙ্গে লুঠপাট চালালো চোরেদের দল। সোমবার দুপুরে এই ঘটনাটি ঘটেছে আসানসোল দক্ষিণ থানার চেলিডাঙ্গার একটি আবাসনে। চোরেরা ঐ আবাসনে ঢুকে আলমারি ভেঙে ৮ থেকে ১০ লক্ষ টাকার সামগ্রী চুরি করে নিয়ে গেছে বলে গৃহকত্রী মীনা লায়েক জানিয়েছেন। তার মধ্যে নগদ টাকা ছাড়াও রয়েছে সোনার গয়না, মোবাইল ফোন সহ অন্যান্য জিনিস। মীনা লায়েকের স্বামী কেশবচন্দ্র লায়েক ইসিএলের অবসরপ্রাপ্ত কর্মী। ঘটনার খবর পেয়ে আসানসোল দক্ষিণ থানার পুলিশ ঐ আবাসনে আসে। পুলিশ অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে।

riju advt


ভরদুপুরে তিনতলার আবাসনে এমন চুরির ঘটনায় অন্য আবাসিকরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। গোটা এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে।
জানা গেছে, এদিন দুপুর দেড়টা নাগাদ আসানসোল শহরের চেলিডাঙ্গার একটি আবাসনের তিনতলার বাসিন্দা কেশব চন্দ্র লায়েক ও মীনা লায়েক দরজায় তালা লাগিয়ে বার্ণপুরে একটি ব্যাঙ্কে যান। বিকেল চারটে নাগাদ তারা ফিরে দেখেন তাদের আবাসনের দরজার তালা ভাঙ্গা রয়েছে। ভেতরের সব জিনিস ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে আছে। ঘরের মধ্যে আলমারিও ভাঙা অবস্থায় রয়েছে।


মীনা লায়েক বলেন, বুঝতে পারছি না, তিনতলার উপরে চোরেরা কি করে এলো? আমার ছেলে গুজরাট ও মেয়ে লন্ডনে থাকে। আমি ও আমার স্বামী এখানে থাকি। তিনি আরো বলেন, আবাসনে নিরাপত্তা রক্ষী থাকলেও, কোন নিয়ম নেই। গোটা ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে।
পুলিশ জানায়, তদন্ত শুরু করা হয়েছে। নিরাপত্তা রক্ষী জেরা করা হচ্ছে। সবকিছু খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *