DURGAPUR

দূর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ, সন্তানের জন্ম দিয়েই মৃত্যু প্রসূতির বিক্ষোভ, উত্তেজনা

বেঙ্গল মিরর, দূর্গাপুর, চরণ মুখার্জী ও রাজা বন্দোপাধ্যায়ঃ পশ্চিম বর্ধমান জেলার দূর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ উঠলো। সন্তানের জন্ম দিয়েই মৃত্যু এক প্রসূতির। শুক্রবার সকালে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে  উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে। এই ঘটনার পরে সুপারের চেম্বারের সামনে এসে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে সরব হয়ে বিক্ষোভ দেখান মৃতার আত্মীয় পরিজনেরা। খবর পেয়ে পুলিশ হাসপাতালে ছুটে আস। মৃত প্রসূতির নাম মৌসুমি হাঁসদা। কাঁকসার কুলডিহার বাসিন্দা বছর ২৪ এর মৌসুমি হাঁসদাকে বৃহস্পতিবার দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিলো।

  অভিযোগ, সন্তানের জন্ম দিয়েই মারা যায় মৌসুমি হাঁসদা। সেই খবর জানতে পারার পরেই উত্তেজিত হয়ে পড়েন মৃতার পরিবারের সদস্য ও পরিজনেরা। তারা এদিন সকালে মহকুমা হাসপাতালের সুপারের চেম্বারের সামনে এসে বিক্ষোভ দেখানো শুরু করেন। একইভাবে বিক্ষোভ দেখান হয় হাসপাতালের সহকারী সুপার সৌমদীপ মন্ডলকে ঘিরে। বিক্ষোভের খবর পেয়ে দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে পুলিশ ছুটে আসে। পুলিশকে ঘিরে ধরেও বিক্ষোভ শুরু হয়।


কেন তাদেরকে না জানিয়েই প্রসূতির সিজার করা হলো সেই সেই প্রশ্ন তুলে ক্ষোভে ফেটে পড়েন মৃতের পরিবার। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে শুক্রবার সকালে দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। অবিলম্বে অভিযুক্ত চিকিৎসকের শাস্তি দাবি করেন মৃত প্রসূতির পরিবারের সদস্যরা।
এই প্রসঙ্গে দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালের সুপার ডাঃ ধীমান মন্ডল বলেন, পুরো ঘটনার বিভাগীয় তদন্ত শুরু হয়েছে। পরিবারের তরফে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। সেই অভিযোগ খতিয়ে দেখে দোষ থাকলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। একইসঙ্গে সুপার আরো বলেন, অনেক সময় রোগীর কথা চিন্তা করে অনেক সিদ্ধান্ত চিকিৎসককে নিতে হয়। অনেক সময় পরিবারের সদস্যদেরকে পাওয়া যায় না। এই ঘটনার ক্ষেত্রে ঠিক কি হয়েছে, তা খোঁজ নিয়ে দেখা হচ্ছে।
পুলিশ জানায়, এক রোগীর মৃত্যুতে বিক্ষোভ দেখানো হচ্ছিলো। পরিস্থিতি সামাল দেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply