ASANSOL

আসানসোলে বিজেপি বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পালের পৈত্রিক বাড়ি  ও দক্ষিণ থানার সামনে বিক্ষোভ

শিখ আইপিএস অফিসারের উদ্দেশ্যে আপত্তিজনক মন্তব্য

বেঙ্গল মিরর, আসানসোল, সৌরদীপ্ত সেনগুপ্ত ও রাজা বন্দোপাধ্যায়: সন্দেশখালিতে কর্মরত আইপিএস অফিসার যশপ্রীত সিংয়ের উদ্দেশ্যে আপত্তিজনক মন্তব্য করেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে রাজ্যের বিরোধী দলনেতাকে গোটা শিখ সম্প্রদায়ের সামনে ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানিয়ে মঙ্গলবার আসানসোলের জিটি রোডের অশোকনগর সারদা পল্লীতে আসানসোল দক্ষিণ বিধান সভার বিজেপি বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পালের পৈত্রিক বাড়ির সামনে বিক্ষোভ দেখালো বার্ণপুর গুরুদ্বোয়ারা প্রবন্ধন কমিটি।


প্রসঙ্গতঃ, সন্দেশখালিতে বিজেপির আন্দোলনের ঠেকাতে রাজ্য সরকারের তরফে বেশ কয়েকজন আইপিএস অফিসারকে পাঠানো হয়েছিলো। তাদের মধ্যে থাকা এক শিখ আইপিএস অফিসারকে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী ” খালিস্তানি ” বলেন বলে অভিযোগ করা হয়েছে। এই নিয়ে শিখ সম্প্রদায়ের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভ তৈরি হয়েছে। বলতে গেলে সারা বাংলায় শিখ সম্প্রদায়ের তরফে বিক্ষোভ চলছে।
এরই প্রতিবাদে এদিন আসানসোলে বিজেপি বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পালের পৈত্রিক বাড়ির বাইরে বার্নপুর গুরুদ্বোয়ারা প্রবন্ধন কমিটির সদস্য ও শিখ সম্প্রদায়ের তরফে বিক্ষোভ দেখানো হয়।

সংগঠনের সম্পাদক সুরেন্দ্র সিংয়ের নেতৃত্বে শিখ সম্প্রদায়ের মানুষজনেরা বিজেপি বিধায়কের বাড়ির সামনে শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে স্লোগান দেন। এই প্রসঙ্গে শ্রী সিং বলেন, একটি রাজনৈতিক দলের দায়িত্ববান নেতার কাছ থেকে এমন মন্তব্য আশা করা যায়না। ঐ অফিসার রাজ্য সরকারের নির্দেশ পালন করতে সেখানে ডিউটিতে গেছেন। তিনি যে সম্প্রদায় বা ধর্মের হোক না কেন। আমরা চাই এমন মন্তব্যের জন্য রাজ্যের বিরোধী দলনেতা ক্ষমা চান। তা না হলে শিখ সম্প্রদায়ের লোকেরা বৃহত্তর আন্দোলনে নামবেন। আমরা বিজেপি বিধায়কের মাধ্যমে রাজ্যের বিরোধী দলনেতার কাছে এই বিক্ষোভের মধ্যে দিয়ে বার্তা পাঠালাম।
উল্লেখ্য, মঙ্গলবার এই মন্তব্যের কড়া সমালোচনা করেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা পুলিশমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই কথার একটি ভিডিও পোস্ট করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তার এক্স হ্যান্ডেলে লিখেছেন, “বিজেপি মনে করে যারা পাগড়ি পড়েন তারা খালিস্তানি! তাদের বিভাজনের রাজনীতি এবার সাংবিধানিক সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছে। “

এদিকে আসানসোল দক্ষিণ থানার সামনে সেন্ট্রাল গুরুদ্বারা প্রবন্ধ কমিটির নেতৃত্বে আসানসোল বার্নপুর সহ বিভিন্ন গুরুদ্বারা কমিটির পদাধিকারীদের উপস্থিতিতে বিক্ষোভ দেখান শিল্পাঞ্চলের শিখ সম্প্রদায়। আসানসোল দক্ষিণ থানার ইন্সপেক্টর ইনচার্জ কৌশিক কুন্ডুর সামনেই সেন্ট্রাল গুরুদুয়ারা প্রবন্ধ কমিটির পক্ষ থেকে একটি স্মারকলিপি দিয়ে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলা হয় রাজ্যের উচ্চতর প্রশাসনিক মহলকে। এছাড়া ওই মন্তব্যের জন্য নিঃস্বার্থ ক্ষমা চাওয়ার দাবিও জানান উপস্থিত সমস্ত শিখ সম্প্রদায়ের মানুষ। প্রসঙ্গত সারা রাজ্যের পাশাপাশি পশ্চিম বর্ধমান জলার রানীগঞ্জ, আসানসোল সহ বিভিন্ন জায়গায় বিক্ষোভ দেখানো হয়।

Leave a Reply